আমি শুধু আল্লাহকে ডেকেছি

বুধবার, ১১ মার্চ ২০১৫

আমি শুধু আল্লাহকে ডেকেছি

 

ঢাকাঃ ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৪৯তম ওভারের প্রথম তিন বলেই দুটি উইকেট, দুটিই বোল্ড। যাতে নিশ্চিত হয় বাংলাদেশের স্মরণীয় এক জয়ও। অ্যাডিলেডে ইতিহাস গড়া জয়ে শেষ ফিনিংশটা দিয়েছেন পেসার রুবেল হোসেন। ২৫ বছর বয়সী এই বোলারের প্রশংসায় ভাসছে এখন গোটা দেশে। বাংলাদেশকে জয় এনে দিয়ে রুবেলও তার স্বপ্নের একধাপ পার করেছেন। এখন কোয়ার্টার ফাইনালে চোখ-ধাঁধানো পারফরম্যান্স দেখানোর অপেক্ষায় তিনি।


মঙ্গলবার অ্যাডিলেডের হোটেল থেকে বের হওয়ার সময় রুবেল বলেন, ‘আমি যখনই সুযোগ পাই, তখনই শতভাগ দেয়ার চেষ্টা করি। আমার অন্তরের গভীর থেকে কিছু একটা করে দেখাতে চেয়েছিলাম। আল্লাহ আমাকে গতকাল (সোমবার) সেই দিনটা দিয়েছেন। আমরা স্বপ্ন ছিল বিশ্বকাপে পাঁচ উইকেট নেব এবং একটি ম্যাচ জেতাবো। আমার কাছে মনে হয়েছে গতকালই (সোমবার) সেই দিনটা ছিল।’

ইংল্যান্ডকে হারানোর পর ক্রিকেটে ক্যারিয়ারে অন্যতম স্মরণীয় দিন হিসেবে মনে করছেন রুবেল। বাগেরহাটের এই ডানহাতি পেসার বলেন, ‘ম্যাচের ওই ওভারটি আমার জীবনের স্মরণীয় একটি মূহুর্ত। আমি স্টুয়ার্ট ব্রডকে বোলিং করছিলাম। সে লেজের ব্যাটসম্যান কিন্তু ব্যাটিংও ভালো করে থাকে। তাই আমি তখন মনে করেছি তার উইকেট যদি নিতে পারি তাহলে ম্যাচটা আমাদের  দিকে চলে  আসবে। আমি শুধু আল্লাহকে ডেকেছি এবং শেষ পর্যন্ত ফলাফলও পেয়েছি। কারণ আমি আত্মবিশ্বাসী ছিলাম। যদি ইর্য়কার লেন্থে এবং ভালো জায়গায় বল ফেলতে পারি তাহলে যে কোনো কিছুই সম্ভব।’

যদিও বিশ্বকাপে যাওয়ার আগে এই রুবেলকে নিয়েই সমালোচনায় ঝড় বয়ে গেছে। উঠতি নায়িকা নাজনীন আক্তার হ্যাপীর করা শিশু ও নারী নির্যাতন মামলায় জেলেও যেতে হয়েছিল তাকে। বিশ্বকাপে তার খেলা নিয়ে শংকাও দেখা দিয়েছিল। রুবেলও মানছেন ওই ঘটনার পর তার উপর চ্যালেঞ্জ আরে বেড়ে যায়। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘এই বিশ্বকাপ আমার জন্য অন্যতম চ্যালেঞ্জিং হয়ে দেখা দেয়। একজন ক্রিকেটার যদি তার ক্ষমতা অনুয়ায়ী ম্যাচে সবটুকু দিতে পারে তাহলে অনেক কিছুই সম্ভব। আর এই কারণে আমরা  কোয়ার্টার ফাইনালে উঠতে পেরেছি।’

এদিকে বাংলাদেশ দলের পাশে সবসময় থাকেন সমর্থকরা । ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দুর্দান্ত একটি জয়ের পর তারা আরো বেশি সমর্থন জানাচ্ছে টাইগারদের। রুবেল জানালেন সমর্থকদের এই ভালোবাসায় আরো ভালো কিছু করার স্বপ্ন দেখে সবাই। এই বিষয়ে রুবেল বলেছেন, ‘অবশ্যই বাংলাদেশ মানুষ আমাদের অনেক সমর্থন করে। আর এই কারণে আমরাও ভালো করার অনুপ্রেরণা পাই। আমরা কোয়ার্টার ফাইনালে  উঠেছি। আশা করি, সুপার এইটেও কিছু একটা করে দেখাতে পারব।’

 

শনিবারের চিঠি / আটলান্টা / ১১ মার্চ ২০১৫

 

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ১০:৩৪ পূর্বাহ্ণ | বুধবার, ১১ মার্চ ২০১৫

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com