আফগানিস্তানে নারী সাংবাদিক ৭০০ থেকে নেমে ৩৯

বুধবার, ০১ সেপ্টেম্বর ২০২১

আফগানিস্তানে নারী সাংবাদিক ৭০০ থেকে নেমে ৩৯
আফগানিস্তানে ২০২০ সাল পর্যন্ত নারী সাংবাদিকের সংখ্যা ছিল ৭০০। সেই সংখ্যা কমতে কমতে বর্তমানে এসে ঠেকেছে ৩৯-এ। ছবি : সংগৃহীত

আফগানিস্তানে ২০২০ সাল পর্যন্ত নারী সাংবাদিকের সংখ্যা ছিল ৭০০। সেই সংখ্যা কমতে কমতে বর্তমানে এসে ঠেকেছে ৩৯-এ। সাংবাদিকদের আন্তর্জাতিক সংগঠন রিপোর্টার্স স্যানস ফ্রন্টিয়ার্স (আরএসএফ) বা রিপোর্টার উইদাউট বর্ডার্স বুধবার এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে।

সংস্থাটির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০২০ সালে আফগানিস্তানে সক্রিয় ছিল ১০৮টি সংবাদমাধ্যম। এই সংবাদমাধ্যমগুলোতে চাকরি করতেন মোট চার হাজার ৯৪০ জন। এই কর্মীদের মধ্যে নারীদের সংখ্যা ছিল এক হাজার ৮০ জন এবং তাদের মধ্যে সাংবাদিক ছিলেন ৭০০ জন।


কিন্তু ১৫ আগস্ট তালেবান বাহিনী কাবুলের দখল নেওয়ার পর থেকে ব্যাপকভাবে হ্রাস পেয়েছে সংবাদমাধ্যমগুলোতে নারী সাংবাদিকদের উপস্থিতি। বর্তমানে পুরো আফগানিস্তানে মাত্র ৩৯ জন নারী সাংবাদিক কর্মক্ষেত্রে কাজ করছেন বলে জানিয়েছে রিপোর্টার্স উইদাউট বর্ডার্স।

তালেবান কাবুল দখলের আগে ও পরে নারী সাংবাদিকদের ঘরে থাকতে বাধ্য করা, হয়রানি এমনকি মারধের পর্যন্ত করা হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে প্রতিবেদনে।

কাবুলের দখল নেওয়ার পর তালেবান বাহিনী যদিও বলেছে, নারীদের কাজকর্মে যোগদানে কোনো বাধা দেওয়া হবে না, কিন্তু অধিকাংশ নারী সাংবাদিক সেই প্রতিশ্রুতিতে আস্থা রাখতে পারছেন না বলে প্রতিবেদনে জানিয়েছে আরএসএফ।

নারী সাংবাদিকরা যেন শঙ্কামুক্তভাবে তাদের কাজ চালিয়ে যেতে পারেন, সেজন্য তালেবান কর্তৃপক্ষকে উদ্যোগ নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে আরএসএফের মহাপরিচালক ক্রিস্টোফার ডেলোইরে বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, ‘নারী সাংবাদিকদের নিজ পেশায় ফেরা তাদের মৌলিক অধিকার এবং তারা যেন সেই পেশায় ফিরতে কোনো প্রকার আতঙ্ক বোধ না করেন, আফগানিস্তানে সেই পরিবেশ সৃষ্টি করা একান্ত প্রয়োজন।’

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৮:৫৬ অপরাহ্ণ | বুধবার, ০১ সেপ্টেম্বর ২০২১

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com