আটলান্টা প্রবাসী অভিজিৎ হত্যার চার বছরেও শুরু হয়নি বিচার

বুধবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

আটলান্টা প্রবাসী অভিজিৎ হত্যার চার বছরেও শুরু হয়নি বিচার

আটলান্টা প্রবাসী ব্লগার ও লেখক অভিজিৎ রায় হত্যার চার বছর পূর্ণ হলেও এখনো মামলার বিচার শুরু হয়নি।

২০১৫ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি রাত সোয়া ৯টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকায় অভিজিৎকে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এ সময় অভিজিতের স্ত্রী রাফিদা আহমেদ বন্যাও গুরুতর আহত হন। হত্যাকাণ্ডের পর শাহবাগ থানায় মামলা দায়ের করা হলেও চার বছরে আদালতে দাখিল হয়নি অভিযোগপত্র । আর এতে মামলাটির বিচার শুরু করা যাচ্ছে না।


এদিকে গত ১৮ নভেম্বর এ মামলাটির অভিযোগপত্র অনুমোদনের জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন হলে পরে তা বিচারের জন্য সিএমএম আদালতে দাখিল করা হবে বলে আদালত সূত্রে জানা গেছে।

আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা মো. নিজাম জানান, আগামী ২৫ মার্চ মামলার প্রতিবেদন দাখিলের জন্য দিন ধার্য রয়েছে।

মামলার নথি থেকে জানা যায়, ২০১৫ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি রাত সোয়া ৯টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকায় অভিজিৎকে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এ সময় অভিজিতের স্ত্রী রাফিদা আহমেদ বন্যাও গুরুতর আহত হন।

এ ঘটনায় অভিজিতের বাবা অধ্যাপক অজয় রায় বাদী হয়ে ২০১৫ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি শাহবাগ থানায় মামলা করেন। হত্যাকাণ্ডের তদন্তে পুলিশকে সহায়তা করতে ঢাকায় আসে যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা (এফবিআই)।

এ হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে আটজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাঁরা সবাই আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সদস্য বলে দাবি করে পুলিশ।

আবার চট্টগ্রাম থেকে আটক ব্লগার শফিউর রহমান ফারাবী ও অনন্ত বিজয় দাস খুনের আসামি মান্নান ইয়াহিয়া ওরফে মান্নান রাহীর বিরুদ্ধে অভিজিৎ হত্যায় প্ররোচনার অভিযোগ আনা হয়েছে।

গ্রেপ্তার হওয়া অন্য ছয়জন হলেন ব্রিটিশ নাগরিক তৌহিদুর রহমান, সাদেক আলী, আমিনুল মল্লিক, জুলহাস বিশ্বাস, আবুল বাশার ও জাফরান হাসান।

শনিবারের চিঠি / আটলান্টা / ২৬ ফেব্রুয়ারি , ২০১৯

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৮:৫৭ পূর্বাহ্ণ | বুধবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com