আজ ১লা ডিসেম্বর, শুরু হল বিজয়ের মাস

মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০

আজ ১লা ডিসেম্বর, শুরু হল বিজয়ের মাস
আজ ১লা ডিসেম্বর, শুরু হল বিজয়ের মাস।

আজ ১লা ডিসেম্বর, শুরু হল বিজয়ের মাস। মহান বিজয়ের মাসের প্রথম দিন আজ। বিজয়ের মাস, বাঙালির শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনের মাস। ১৯৭১ সালের এই মাসেই অর্জিত হয় আমাদের স্বাধীনতা। দীর্ঘ প্রায় ৯ মাসের সশস্ত্র যুদ্ধ শেষে এ মাসেই আনুষ্ঠানিকভাবে আত্মসমার্পণ করে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী। হাজার ঘাত-প্রতিঘাত পেরিয়ে এ মাসেই বাঙালি অর্জন করে কাঙ্ক্ষিত স্বাধীনতা।

বাংলাদেশ সৃষ্টির সুদীর্ঘ ইতিহাসে অন্যতম শ্রেষ্ঠতম ঘটনা ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধ। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে সশস্ত্র স্বাধীনতা সংগ্রামের এক ঐতিহাসিক ঘটনার মধ্য দিয়ে বাঙ্গালি জাতির হাজার বছরের স্বপ্ন পূরণ হয় এ মাসেই। বাঙালি জাতির সর্বশ্রেষ্ঠ অর্জন গৌরবদীপ্ত চুড়ান্ত বিজয় অর্জিত হয় এ মাসের ১৬ ডিসেম্বর।


বিশ্ব দরবারে স্বাধীন জাতি হিসেবে বিশ্বে আত্মপরিচয় লাভ করে বাঙালিরা। অর্জন করে নিজস্ব ভূ-খণ্ড আর সবুজের বুকে লাল সূর্য খচিত নিজস্ব জাতীয় পতাকা। এক রক্তক্ষয়ী জনযুদ্ধের মাধ্যমে ঘোষিত স্বাধীনতা এ দিনেই পূর্ণতা পায়।

বাঙালির হাজার বছরের স্বপ্নপূরণ হবার পাশাপাশি বহু তরতাজা প্রাণ বিসর্জন আর মা-বোনের সম্ভ্রম হারানোর বেদনার কথা মনে করিয়ে দেয় এই ডিসেম্বর। প্রতিবছর নতুন করে দেশপ্রেমে আত্মপ্রত্যয়ী হওয়ার পথ দেখায় এই ডিসেম্বর।

এ মাসেই স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি তাদের এদেশীয় দোসর রাজাকার-আলবদর আল শামসদের সহযোগিতায় দেশের মেধা, শ্রেষ্ঠ সস্তান-বুদ্ধিজীবী হত্যাযজ্ঞে মেতে ওঠে। সমগ্র জাতিকে মেধাহীন করে দেওয়ার এমন ঘৃণ্য নজির বিশ্বে আর নেই।

৩০ লাখ শহীদ আর দু’লাখ মা-বোনের সম্ভ্রমহানি যাদের কারণে, আজ তাদের বিচারের মধ্যদিয়ে জাতি কালিমামুক্ত হওয়ার প্রয়াস পেয়েছে, আমাদের জন্য এটা গর্বের। আমাদের আবার নতুন করে শপথ নেওয়ার সময় এসেছে, আমরা স্বাধীনতার মর্যাদা অক্ষুণ্ন রাখবো। নিজস্ব ভূ-খণ্ড আর সবুজের বুকে লাল সূর্য খচিত নিজস্ব জাতীয় পতাকা সমুন্নত রাখবো।

১৯৭১ সালের ডিসেম্বর মাসের শুরু থেকেই মুক্তিযোদ্ধাদের গেরিলা আক্রমণ আর ভারতীয় মিত্রবাহিনীর সমন্বয়ে গঠিত যৌথবাহিনীর জল-স্থল আর আকাশপথে সাঁড়াশি আক্রমণের মুখে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর পরাজয়ের খবর চারদিক থেকে ভেসে আসতে থাকে। অবশেষে ১৬ ডিসেম্বর ঢাকার ঐতিহাসিক রেসকোর্স ময়দানে বর্তমান সোহরাওয়ার্দী উদ্যান পাকিস্তানি বাহিনী আত্মসমর্পণ করতে বাধ্য হয়।

যেখান থেকে ৭ মার্চ স্বাধীনতার স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ‘এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম,’ বলে স্বাধীনতার ডাক দেন, সেখানেই পরাজয়ের দলিলে স্বাক্ষর করেন পাক জেনারেল নিয়াজী। এর মধ্যদিয়ে ৯ মাসের রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধের চূড়ান্ত বিজয় অর্জিত হয়। আর জাতি অর্জন করে হাজার বছরের স্বপ্নের স্বাধীনতা।

শনিবারের চিঠি / আটলান্টা/ ০১ ডিসেম্বর, ২০২০

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৫:৫৮ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com