অগ্নিকাণ্ডে নিহত শ্রমিকের পরিবার পাবে দুই লাখ টাকা — মুন্নুজান সুফিয়ান

শুক্রবার, ০৯ জুলাই ২০২১

অগ্নিকাণ্ডে নিহত শ্রমিকের পরিবার পাবে দুই লাখ টাকা  — মুন্নুজান সুফিয়ান
গতকাল বৃহস্পতিবার ও আজ শুক্রবার মিলিয়ে এখন পর্যন্ত ৫২ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ছবি : স্টার মেইল

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে হাশেম ফুড অ্যান্ড বেভারেজ লিমিটেডের কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে নিহত প্রতিটি শ্রমিকের পরিবারকে শ্রম কল্যাণ ট্রাস্ট থেকে দুই লাখ টাকা করে দেওয়া হবে। এ ছাড়া এ ঘটনায় আহত শ্রমিকদের ৫০ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে।

আজ শুক্রবার সন্ধ্যায় অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ভবন পরিদর্শনে এসে শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মুন্নুজান সুফিয়ান এ কথা বলেছেন।


এ সময় প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন জাতীয় শ্রমিক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কাউসার আহমেদ পলাশ, রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শাহ্ নুসরাত জাহান প্রমুখ।

উদ্ধারকৃত লাশের একটি অংশ [ ছবিঃ সংগৃহীত ]

শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘যেসব শ্রমিক নিহত হয়েছেন তাদের পরিবারকে মালিকপক্ষের কাছ থেকে উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ আদায় করে দেওয়া হবে।

এ ঘটনায় যদি মালিকপক্ষের গাফিলতি থাকে বা কল-কারখানা অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের যদি কোনো গাফিলতি থাকে সে ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও আশ্বাস দেন মুন্নুজান সুফিয়ান। তিনি বলেন, কারণ এসব প্রতিষ্ঠানে শ্রমিকবান্ধব পরিবেশ আছে কি না তা দেখার দায়িত্ব কল-কারখানা অধিদপ্তরের। এর মধ্যেই তিনটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এসব কমিটির রিপোর্ট অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে এই কারখানায় অগ্নিকাণ্ড ঘটে। আগুন লাগার পর পরই গোটা ভবনে লেলিহান শিখা দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে এবং ফায়ার সার্ভিসের ১৮টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করে।

আজ শুক্রবার বিকেল পর্যন্ত ৫২ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এর মধ্যে গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে তিনজন এবং আজ শুক্রবার দুপুরের পর আরও ৪৯ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এসব লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের পরিচালক (অপারেশন) জিল্লুর রহমান বলেন, ‘আমরা ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স ৪৯টা ডেডবডি শনাক্ত করেছি। তাদের সবাইকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। কোনো আত্মীয়-স্বজন যদি নিঁখোজ মনে করেন, তাদের জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এবং ফায়ার সার্ভিসের পক্ষ থেকে অনুরোধ থাকবে, তারা যেন ঢাকা মেডিকেলে যোগাযোগ করেন। ঢাকা মেডিকেল কলেজে লাশ শনাক্ত করার জন্য আমাদের ফায়ার সার্ভিস, জেলা প্রশাসন, পুলিশ সবার পক্ষ থেকে প্রতিনিধি আছে। ওখানে আমাদের যে সরকারি নিয়ম রয়েছে সেগুলো সম্পন্ন শেষে আত্মীয়-স্বজনের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হবে।’

সাত সদস্যের তদন্ত কমিটি
কারখানায় এই অগ্নিকাণ্ড ও প্রাণহানীর ঘটনা তদন্তে সাত সদস্যের কমিটি গঠন করেছে জেলা প্রশাসন। এ কমিটিকে আগামী সাতদিনের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

আজ দুপুরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে নারায়ণগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো. মোস্তাইন বিল্লাহ এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শামীম বেপারীকে আহ্বায়ক করে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটি চাইলে আরও লোক নিতে পারবে। যদি তারা মনে করেন, পানি, গ্যাস ও বিদ্যুতের লোক নিবে নিতে পারবে।’

নিহতের পরিবার পাবে দুই লাখ টাকা
ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে নিহত শ্রমিকদের পরিবারকে শ্রম কল্যাণ ট্রাস্ট থেকে দুই লাখ টাকা এবং আহত শ্রমিকদের ৫০ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে। আজ ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মুন্নুজান সুফিয়ান।

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৮:০৯ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, ০৯ জুলাই ২০২১

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com